সুস্থ, সবল এবং সুখি জীবন যাপনে থানকুনি পাতার উপকারিতা fully update

থানকুনি পাতার উপকারিতা

সুস্থ, সবল এবং সুখী জীবন যাপনের জন্য আমাদের সকলেরই থানকুনি পাতার উপকারিতা সর্ম্পকে জানা উচিৎ। স্বাস্থ্যই সকল সুখের মূল কথাটি যেমন সত্যি, ঠিক তেমনি এই সুখের মূলে থানকুনি পাতার উপকারিতা এবং দৈনন্দিন জীবনে এর ব্যবহার নিয়ে Top Chakri.com আপনাদের সামনে হাজির হয়েছে।

সম্মানিত এলাকাবাসি, আচ্ছালামু আলাইকুম,
আমি আপনাদের সামনে আজকে সুস্থ, সবল এবং সুখি জীবন যাপনে যে গাছটির গুনাগুন নিয়ে আলোচনা করব তা হচ্ছে থানকুনি গাছের উপকারিতা এবং দৈনন্দিন জীবনে এর ব্যবহার:

প্রাচীনকালে আর্য়ুবেদ শাস্ত্রে এই থানকুনি পাতার বহু গুনাগুনের কথা বলা হয়েছে। Tips for good health. দেহকে সুস্থ এবং সবল রাখতে এই গাছের পাতা এক অনস্বীকার্য ভূমিকা পালন করে। বহু বছর ধরে এই গাছের পাতা বিভিন্ন রোগে ব্যবহার হয়ে আসছে। কিছু বছর আগে এই পাতা প্রায় প্রত্যেকটি বাড়ি এবং প্রত্যেক যায়গাতেই দেখা যেত। কিন্তু বর্তমানে এই গাছ বিলুপ্ত প্রায়। খুব কম বাড়িতে এই পাতা এখন দেখা যায়।

থানকুনি পাতার উপকারিতা:

গুনাগুন/উপকারিতা:
কিন্তু এই পাতার এত বেশি গুনাগুন যে আপনারা জানলে সত্যিই অবাক হবেন। এই থানকুনি পাতার আর এক বৈজ্ঞানিক নাম হচ্ছে (Centella Asiatica) সুস্থ, সবল এবং সুখি সেই সঙ্গে দীর্ঘ জীবন লাভ করতে এবং যৌবনের তারুন্য বজায় রাখতে থানকুনি পাতার উপকারিতা ও গুনাগুন অপিরিহার্য। এই থানকুনি পাতায় প্রচুর পরিমান ভিটামিন B এবং ভিটামিন C থাকে। এতে রয়েছে একাধিক অ্যান্টিঅক্সিডান্ট এবং অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদান, যা আমাদের ইউনিটি পাওয়ার বাড়াতে সাহায্য করে এবং তার সাথে সাথে দেহকে সুস্থ এবং সবল রাখতে সাহায্য করে। তাছারা নিজেকে সর্বদাই সুস্থ এবং সবল রাখতে এই পাতা অমৃতের মত কাজ করে। যারা বহুদিন ধরে গ্যাস, এসিটিক, বদহজম অথবা পেটের যেকোন সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্য এই গাছের পাতার রস অমূল্য সম্পদ।

সুস্থ, সবল এবং সুখি জীবন যাপনে এর ব্যবহার:

প্রতিদিন এই পাতা খালি পেটে চিবিয়ে পানিসহ খেলে, আপনার গ্যাস, এসিডি, বদহজম এই সকল পেটের সমস্যা জনিত রোগ থেকে ১০০% মুক্তি পাবেন। আর যারা বহু বছর ধরে আমাশয় রোগে ভূগছেন কোন ওষুধ আর কাজ করছেনা তাদের জন্য অত্যান্ত উপকারি এই পাতা। উক্ত নিয়মে আপনারা যদি খালি পেটে এই পাতা দুই থেকে তিন মাস সেবন করেন, তাহলে আপনাদের এই রোগ আস্তে আস্তে ভাল হবে। এক সময় দেখা যাবে আপনাদের আর এই আমাশা রোগের জন্য কোন প্রকার টেনশন করতে হবেনা। এছাড়াও এই পাতা আমাদের মস্তিস্কের কার্য ক্ষমতা বাড়ায় এবং মানুষিক অবসাধ থেকে আমাদের দুরে রাখতে সাহায্য করে।

থানকুনি পাতার গুনাগুন:

অনেকে আছেন যাদের শরীরের ভিতরে জ্বালা জ্বালা ভাব, তারা উক্ত নিয়মে এই পাতা খেলে নিচ্ছিৎ তাদের দেহের অভ্যন্তরীন জ্বালা যন্ত্রনাগুলো আর থাকবেনা। যাদের খাওয়ার রুচি একেবারে কম তাদের ক্ষেত্রে এই পাতা অত্যান্ত উপকারি একটি ওষধি। এই পাতা আমাদের ক্ষুদা বৃদ্ধি করে এবং মুখের রুচি বাড়ায়।

যারা বহুদিন ধরে ইরিটেবল বাওয়েল সিনড্রোম অর্থাৎ কখনও কখনও ঘনঘন পায়খানা আবার কখনও কোষ্ঠ-কাঠিন্যে ভূগছেন তাদের জন্য এই পাতার কোন বিকল্প নেই। এই সমস্যা যাদের আছে, তারা যদি ধর্যধরে প্রতিদিন ১০ থেকে ১২ টি পাতা প্রতিদিন খালি পেটে সেবন করতে পারেন। তাহলে এক সময় দেখা যাবে মহান সৃষ্টিকর্তার কৃপায় আপনার এই সমস্য আর থকবেনা। আবার যাদের কাঁটা ঘা সহজে শুকায়না তারা এটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন থানকুনি পাতার উপকারিতা কতটা আকাশচুন্বি।

Tips for good health সুখী জীবনের জন্য থানকুনি পাতার উপকারিতা

প্রিয় ভাই এবং বোনেরা এই পাতার রস সেবনের মাধ্যমে অনেক উপকার পাবেন এবং দীর্ঘ জীবন লাভ করবেন, নিজের তারুন্যকে ধরে রাখতে পারবেন। সব কিছুর মূলে হচ্ছে আমাদের এই পেট। পেটর সমস্যা থাকলে আমাদের শরীরে অনেক ধরনের সমস্যা তৈরী হয় এবং আক্রমন করে বিভিন্ন ধরনের রোগ। সেক্ষেত্রে এই গাছের পাতা এক মহা ওষুধ।

আপনারা সহজেই বুঝতে পারছেন এই পাতার গুনাগুন কত বেশি। তাহলে চলুন আমরা আজ থেকে এই গাছের ব্যবহার শুরু করি। আমার দেওয়া এই তথ্যগুলির মধ্যে যদি কোন প্রশ্ন বা সন্দেহ থাকে তাহলে কমেন্ট বক্সে অবশ্যই কমেন্ট করে জনাবেন। আমি চেষ্টা করব আপনাদের প্রশ্নের সঠিক উত্তর দেওয়ার।

প্রিয় দেশবাসি, আশা করি আমার দেওয়া এই ভিডিওটি আপনাদের ভাল লাগবে। ভাল লাগলে ভিডিওটি Like এবং Share করতে ভূলবেননা। Like, Share করলে অন্যেরাও ভিডিওটি পাবে এবং আপনাদের মত উপকৃত হবে।
আপনারা সকলেই ভাল থাকুন, সুস্থ থাকুন এই কামনা করে আজকের মতে এখানেই শেষ করছি। ধন্যবাদ

থানকুনি পাতার উপকারিতা এছাড়াও বাংলার সকল সরকারি-বেসরকারি এবং এনজিও চাকরির নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২১ আমাদের ওয়েবসাইট Top Chakri.com এ প্রকাশ করা হয়। তাই নতুন সকল চাকরির আপডেট পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি নিয়মিত ভিজিট করুন এবং Facebook পেজটিতে Like দিন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here